ওয়ার্ডপ্রেস কী ? কিভাবে পোস্ট দিতে হয় ?

 


ওয়ার্ডপ্রেস কি ( What is WordPress )?


ওয়ার্ডপ্রেস কি? ওয়ার্ডপ্রেস হলো পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (CMS). এটি একটি ওপেন সোর্স ব্লগিং সফটওয়্যার। সাড়া বিশ্বের প্রায় ৪০ শতাংশ ওয়েবসাইট WordPress দিয়ে তৈরি করা এবং এটি দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। 

ওয়ার্ডপ্রেস মূলত php এবং mySQL দিয়ে তৈরি করা। কোনো রকম প্রোগ্রামিং জ্ঞান ছাড়াই WordPress দিয়ে ওয়েবসাইট চালানো যায়। ২০০৩ সালের ২৭শে মে ম্যাট মুলেনওয়েগ এটি প্রাথমিকভাবে প্রকাশ করেন, তাই তাকে ওয়ার্ডপ্রেসের জনক বলা হয়ে থাকে। 

প্রথমদিকে ওয়ার্ডপ্রেস শুধুমাত্র ব্লগিং সফটওয়্যার হিসেবে বেশ পরিচিত লাভ করলেও বর্তমানে ওয়র্ডপ্রেস দিয়ে প্রায় সবরকমের কাজ করা যায়।

ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট / কেন ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করবো ?

ধরুন আপনার একটি ওয়েসাইট দরকার কিন্তু আপনি ওয়েবসাইট বিষয়ে তেমন কিছুই জানেন না। এমন অবস্থায় আপনি ওয়েবসাইট ডেভলপার দিয়ে ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডেভলপ অথবা কাস্টমাইজ করে নিলেন। পরবর্তীতে আপনার সাইটের জন্য ওয়ার্ডপ্রেস অপারেটর রাখতে না চাইলে আপনাকে নিজেই সাইটটি অপারেট করতে হবে। 

এক্ষেত্রে কোনো প্রকার কোডিং দক্ষতা ছাড়াই আপনি আপনার সাইটটি চালাতে পারবেন। তবে এর জন্য আপনার কিছু সেল্ফ স্টাডি করার প্রয়োজন হতে পারে। সব কথার মূল কথা হলো WordPress সাইট চালানো অনেক সহজ, চাইলে যেকেউ এটা অপারেট করতে পারে। 

তাই এর জনপ্রিয়তাও দিন দিন যেমন বেড়ে চলছে তেমনি প্রতিনিয়ত এটার ফাংশনালিটিও বেড়েই চলছে। আজকাল ব্লগিং থেকে শুরু করে ই-কমার্স সাইট, সংবাদপত্র, ই-লার্নিং থেকে শুরু করে প্রায় সকলপ্রকার ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহার করে তৈরি করা হচ্ছে। ফলে সময় পরিবর্তনের সাথে সাথে এটার চাহিদাও দাড়ুনভাবে বেড়ে চলছে।



WordPress এর সুবিধা :


  • প্রথমেই, এরকম একটি অ্যাডভান্সড (advanced) ধরণের সফটওয়্যার আপনারা ফ্রীতেই পেয়ে যাচ্ছেন। WordPress ব্যবহার করার জন্য আপনার কোনো টাকা দিতে হয়না।
  • অনলাইন সফটওয়্যার হওয়ার জন্য, আপনি নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইটের কাজ যেকোনো জায়গার থেকেই করতে পারবেন। আপনার কেবল একটি ল্যাপটপ এবং ইন্টারনেট কানেক্শনের প্রয়োজন হবে।
  • WordPress সম্পূর্ণ ভাবে SEO friendly . মানে, ওয়ার্ডপ্রেস এমন কিছু সহজ এবং standard রকমের codes ব্যবহার করে ওয়েবসাইট তৈরি করে যেগুলির জন্য অনেক সহজে আপনার ওয়েবসাইট ও ব্লগ Google search engine এ index হতে সাহায্য করে।
  • WordPress আজ কোটি কোটি webmasters দেড় ভরসা। এবং, এই ভরসা বজায় রাখার জন্য, ওয়ার্ডপ্রেস তার নিরাপত্তার দিগে অনেক ভালো ভাবে ধ্যান দিয়েছে। একটি ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগ বা ওয়েবসাইট, হ্যাক (hack) করা বা তার ক্ষতি করাটা কিন্তু ৯৮% অসম্ভব।
  • কেবল ব্লগ বা সাধারণ ওয়েবসাইট না, আপনি এই CMS software ব্যবহার করে বিভিন্ন রকমের ওয়েবসাইট নিজেই তৈরি করতে পারবেন। যেমন, social media website, e-commerce website, company website, forum এবং আরো অনেক ধরণের।
  • হাজার হাজার ফ্রি থিম (theme) এবং প্লাগিন (plugin) পেয়ে যাবেন, যেগুলি ব্যবহার করে নিজের ওয়েবসাইটের ক্ষমতা, সৌন্দর্য, ডিসাইন এবং ফাঙ্কশন (function) বাড়িয়ে নিতে পারবেন।
  • অনেক সহজে থিম (theme) বদলে দিয়ে নিজের ব্লগের ডিজাইন (design) ও বদলে দিতে পারবেন।
  • সব রকমের latest এবং advanced function ওয়ার্ডপ্রেস আপনাদের দিবে। যেমন, social sharing options, responsive website design, SEO Friendly structure, easy customization, plugins ও আরো অনেক functions রয়েছে।
  • Customize অপশনে গিয়ে, আপনারা নিজের ব্লগ বা ওয়েবসাইট এর ডিজাইন অনেক সহজে এডিট করতে পারবেন live preview সহ।
  • ইন্টারনেটে ওয়ার্ডপ্রেসের বিষয়ে অনেক অনেক ভটিউটোরিয়াল (tutorial) ভিডিও এবং আর্টিকেল পাবেন, যেগুলি দেখে অনেক সহজে জেকেও ওয়ার্ডপ্রেস এর বিষয়ে সহজে শিখে নিতে পারবেন।

এখন আমি আপনাদের দেখাবো ওয়ার্ডপ্রেসে কিভাবে নতুন একটি পোস্ট করতে হয় । আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড থেকে পোস্টে মাউস হোভার করলে আপনি চার অপশন দেখতে পারবেন । সেগুলা হল –


  • All Posts – এখান থেকে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের সকল পোস্ট দেখতে পারবেন।
  • Add new – নতুন পোস্ট তৈরি করার জন্য এটি ব্যাবহার করা হয় ।
  • Categories – এখান থেকে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের / ব্লগের বিভিন্ন বিভাগ তৈরি করতে পারবেন ।
  • Tags – আপনার ওয়েবসাইটে ব্যাবহৃত সকল ট্যাগ দেখতে পারবেন।


একটু পরে আমরা প্রত্যেকটা বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব ।


নতুন পোস্ট তৈরি করার আগে চলুন আমরা Categories ( বিভাগ ) অপশনটা নিয়ে একটু আলোচনা করি । ধরুন , আপনি আপনার ওয়েবসাইটে ১০০ টা পোস্ট করছেন বা করবেন ।

 এই ১০০ টা পোস্ট তো একি বিষয় নিয়ে নয় , তাই না ? আপনি যদি একটা বিষয় ( topic ) নিয়ে ১০টা পোস্ট লিখেন , তাহলে সেই ১০ টা পোস্ট একটা বিভাগে রাখবেন যাতে আপনার ইউজাররা খুব সহজে তার দরকারি বিষয়ের পোস্ট পড়তে পারে।

আপনি এখন এই যে ওয়ার্ডপ্রেসের টিউটোরিয়াল সিরিজটা ফলো করছেন , এই সিরিজটা আমি ওয়ার্ডপ্রেস বাংলা টিউটোরিয়াল নামে বিভাগে রাখছি। যাতে আপনারা এখানে ক্লিক করে ওয়ার্ডপ্রেসের সব টিউটোরিয়াল এক সাথে পান।


কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেসে নতুন একটি পোস্ট তৈরি করতে হয় ?

নতুন একটা পোস্ট তৈরি করার জন্য পোস্ট অপশন থেকে অ্যাড নিউতে ক্লিক করুন । এরপর আপনি একটা এডিটর দেখতে পারবেন । এই এডিটরটার নাম ব্লক এডিটর । 

আগে ওয়ার্ডপ্রেসে অন্য একটি এডিটর ছিল ওইটার নাম ক্লাসিক এডিটর ( যা প্রায় মাইক্রস্ফট ওয়ার্ডের মত ছিল ) । এখন এই ব্লক এডিটর ডিফল্ট এডিটর এবং এইটা পোস্ট করা অনেক সহজ। আপনি চাইলে Classic Editor এই প্লাগিন ইন্সটল করে ক্লাসিক এডিটর ব্যাবহার করতে পারেন ।


  • আপনার পোস্টের টাইটেল দিন ।
  • + ব্লক্সে ক্লিক করলে আপনি বিভিন্ন ব্লক দেখতে পারবেন । আপনার প্রয়োজন মত ব্লক নিন ।
  • এখান থেকে আপনার তৈরি করা বিভাগ সিলেক্ট করুন ।
  • ঐযে বলছিলাম অন্যভাবেও পোস্টের বিভাগ তৈরি করা যায় ! Add New Category – তে ক্লিক করেও করতে পারেন ।
  • আপনার পোস্ট করা হলে আবার পাব্লিশ করুন Publish বাটনে ক্লিক করে ।

সুন্দর করে কিভাবে পোস্ট করতে হয় সেটা জানার জন্য আমাদের ব্লগ সেকশনটি ফলো করুন । 


আরো পড়ুন:

  1. আই ফোন সারা পৃথিবীতে বিখ্যাত কোনো 
  2. প্রসেসর কি 
  3. বাংলাদেশে dslr ক্যামেরার দাম 
  4. সফ্টওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং কি ?
  5. বিশ্বের সেরা 11টি জনপ্রিয় অনলাইন মোবাইল গেম
  6. নতুন গেমিং ল্যাপটপ 2022
  7. নতুন গেমিং পিসি 2022 |
  8. ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা দামের মধ্যে ভালো ফোন 
  9. কম্পিউটার ভাইরাস কি ? কম্পিউটারে ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়ার উপায় কি ?
  10. 10000-এর নীচে সেরা ফোন 


0/পোস্ট এ কমেন্ট/Comments