রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম

 


রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম |


আজকের এই পোস্টটিতে রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত আপনাদের কাছে শেয়ার করা হবে। অবশ্যই রকেট একাউন্ট আপনি খোলার জন্য অনেক প্রশ্ন আপনার মনে থাকতে পারে যে কিভাবে রকেট এজেন্ট একাউন্ট খুলতে হয়, কিভাবে রকেট ব্যালেন্স চেক করতে হয়, Rocket account খোলার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কি কি লাগে এই সব তথ্য এই পোস্টটিতে আশা করি আপনি পেয়ে যাবেন তাই সম্পূর্ণ পড়ার অনুরোধ রইল।


বর্তমানে প্রযুক্তির যুগে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা আর্থিক লেনদেনকে আরও সহজ করে তুলেছে। এই মোবাইল ব্যাংকিং সেবার মাধ্যমে মানুষ যেকোন সময় যেকোন ধরনের লেনদেন সম্পন্ন করতে পারে।  এখন আর লাইনে দাঁড়িয়ে বিল প্রদান করতে হয় না। মোবাইল ব্যাংকিং চালু হওয়ার পর থেকে মানুষজন করে বসে মোবাইল ব্যাংকিং সেবা গ্রহণ করে বিল প্রদান করে থাকে। 

মোবাইল ব্যাংকিং বর্তমানে বহুল প্রচলিত একটি আর্থিক লেনদেন। এই সেবা সম্পর্কে অনেকের  মনে অনেক ধরনের প্রশ্ন জেগে ওঠে। তাই আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি DBBLকর্তৃক মোবাইল ব্যাংকিং সেবার অন্যতম একটি মাধ্যম রকেট। আমরা রকেটের বিস্তারিত আলোচনা করব।


রকেট একটি বহুল জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং সেবা। তবে এখনো অনেক মানুষ আছে যারা রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম জানেনা। এবং রকেট একাউন্ট সম্পর্কে ধারণা নেই। তাদের জন্য আজকের এই কনটেন্টে। রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম সহ রকেট একাউন্ট সম্পর্কিত সকল তথ্য আপনাদেরকে প্রদান করব।


অ্যাপ এর সাহায্য রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম

  • প্রথমে আপনার স্মার্টফোনের “Play store” or “App store” রকেট অ্যাপস ডাউনলোড করে ইন্সটল করতে হবে। 
  • ইনস্টল করা হয়ে গেলে আপনার অ্যাপটি ওপেন করতে হবে। 
  • এরপর অ্যাপস থেকে আপনার নির্ধারিত ভাষা নির্বাচন করতে হবে। (যেমনঃ আপনি বাংলা ভাষা সিলেক্ট করলেন)। 
  • এরপর ফাঁকা জায়গায় আপনার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বার দিতে হবে। (যে সিম দিয়ে আপনি রকেট অ্যাকাউন্ট খুলবেন ঐ সিমের নাম্বার দিতে হবে)।  
  • নাম্বারটি সেভ করা হয়ে গেলে রকেট অফিস থেকে আপনাকে একটি কল করা হবে। সেখানে আপনাকে চার ডিজিটের একটি পিন বা পাসওয়ার্ড সেট করতে হবে। (অবশ্যই আপনি আপনার পিন বা পাসওয়ার্ডটি মনে রাখবেন এবং আপনি ছাড়া অন্য কাউকে এ ধরনের পাসওয়ার্ড জানাবেন না)।  
  • তারপর  আপনার ব্যবহৃত যে সিম দিয়ে রকেট একাউন্ট খুলবেন সেই সিমে ১৬ ডিজিটের একটি সিকিউরিটি কোড এসএমএসের মাধ্যমে আসবে। 
  • সিকিউরিটি কোডটি যাচাই করুন এবং পরবর্তীতে ওকে বাটনে চাপ দিন। 
  • আপনার অ্যাকাউন্ট লগইন করার পর কিছু নিবন্ধনের সঠিক তথ্য চাইবে সে তথ্য গুলো পূরণ করুন। 
  • ক্যামেরা মধ্যে ক্লিক করে আপনি আপনার ছবি তুলুন। ছবি তোলার আগে অবশ্যই উপরোক্ত বিষয়গুলো ভালো করে পড়ে নিবেন। (উল্লেখ্য যে, ছবি তলার সময় আপনার চখের চশ্মা থাকলে খুলে নিতে হবে, এমন ভাবে ক্যামেরাতে আপনার ফাচে থাকবে যেন আপনার মুখ, চোখ, নাক ভাল করে বুজা যায়)। 
  • এরপর আপনি আপনার ন্যাশনাল আইডি কার্ডের এপিঠ-ওপিঠ এর পরিষ্কার ছবি তুলুন। 
  • ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ছবি জমা দিয়ে নেক্সট বাটনে ক্লিক করুন। 
  • এরপর আপনার সকল তথ্য সঠিক আছে কিনা সেগুলো যাচাই করে কনফার্ম করুন। 
  • কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর আপনার রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হয়েছে কিনা সেটি কনফার্ম করার জন্য আপনার মোবাইলে একটি এসএমএস পাঠানো হবে। 
  • এভাবেই আপনি নিশ্চিত হয়ে যাবেন যে আপনার মোবাইল ফোনে নগদ একাউন্ট খোলা হয়েছে।


  রকেট এজেন্ট বা রকেট কাস্টমার সার্ভিস থেকে রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম 


বাংলাদেশের সর্বপ্রথম মোবাইল ব্যাংকিং ডাচ বাংলা কর্তৃক বর্তমান আর্থিক লেনদেন রকেট একাউন্ট নামে পরিচিত। আপনার কাছে যদি মনে হয় নিজে নিজে একাউন্ট করা ঝামেলা। তাহলে আপনি রকেট এজেন্ট বা কাস্টমার এর সাহায্যে রকেট একাউন্ট খুলতে পারবেন।  তবে আই একাউন্ট খোলার জন্য আপনার কিছু  প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে এজেন্ট বা কাস্টমার সার্ভিস এ যেতে হবে।


  • আপনার ব্যবহৃত ফোন নাম্বার 
  • আপনার ব্যবহৃত ১ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি 
  • আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি। 
  • এরপর আপনাকে রকেট একাউন্ট রকেট এজেন্ট কর্তৃক একটি ফর্ম দেওয়া হবে সেখানে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য পূরণ করে আপনার বৃদ্ধাঙ্গুলির ছাপ এবং স্বাক্ষর দিতে হবে। 
  • তিন থেকে পাঁচ দিন অপেক্ষা করার পর রকেট একাউন্ট সচল হয়ে যাবে। 
  • আর আপনার রকেট একাউন্ট সচল হয়েছে কিনা সেটি জানার জন্য রকেট এজেন্ট কর্তৃক আপনার মোবাইল ফোনে একটি কনফার্মেশন এসএমএস দেয়া হবে। 
  • এই মাধ্যম গুলো ব্যবহার করে আপনি খুব সহজেই রকেট একাউন্ট করতে পারবেন এবং সেবা নিতে পারবেন। 


রকেট সেন্ড মানি চার্জ। Send Money

রকেট একাউন্টে সেন্ড মানি করতে কোন ধরণের চার্জ নেই। আপনি বিনা খরচে রকেট থেকে সেন্ড মানি করতে পারেন।


রকেট ক্যাশ আউট চার্জ। cash out

রকেটের ক্যাশ আউট চার্জ প্রতি হাজারে ১৮। প্রতি হাজারে আপনার ১৮ টাকা খরচ হবে। আপনার প্রতি হাজারে ১৮ টাকা খরচ হবে। এখন আপনি হিশাব করুন আপনি কত টাকা ক্যাশ আউট করবেন।

ডিবিবিএল বা এটিএম বুথ থেকে টাকা তুললে হাজারে ৯ টাকা চার্জ প্রযোজ্য। ডাচ বাংলা ব্যাংক বা তার শাখায় ক্যাশআউট চার্জ কম। তাই সশ্রয়ী চার্জে ক্যাশ আউট করতে ডিবিবিএল থেকে করুন।

রকেট: ক্যাশ আউট করার নিয়ম।

রকেট থেকে কিভাবে টাকা উঠাবেন। কিভাবে Cash out করবেন অনেকে জানতে চান। আমার আজ দেখাব কিভাবে রকেট থেকে টাকা উঠাতে হয়। রকেট থেকে টাকা দুই ভাবে ক্যাশ আউট করা যায়।


  • এপ্লিকেশন দিয়ে।
  • রকেট কোড *৩২২# দিয়ে।
  • রকেট এপ্লিকেশন দিয়ে ক্যাশ আউট:
  • প্রথমে রকেট অ্যাপে লগ ইন করুন।
  • তারপর একটি পেজ আসবে। সেখানে ক্যাশ আউট সিলেক্ট করুন।
  • তারপর যে নম্বারে টাকা পাঠাবেন তা তুলুন। QR কোড স্কেনের মাধ্যমেও নম্বার তুলতে পারেন।
  • এমাউন্ট বা যত টাকাা দিবেন তা লিখে দিন।
  • পিন দিন। ক্যাশ আউট হয়ে গেলো।

রকেট ক্যাশ আউট লিমিটেশন বা সীমা।

রকেট দিয়ে অর্থ লেনদেন বর্তমানে বহুল প্রচলিত একটি বিষয়। কিন্তু সর্বোচ্চ কত বার ক্যাশ আউট করতে পারবেন। ঠিক কত টাকা ক্যাশ আউট করতে পারবেন তা  অনেকেরই আজানা। কেউ আবার জানতে চান। চলুন আজ জেনে নেওয়া ক্যাশ আউট লিমিট সম্পর্কে।


 প্রতিদিন ১০০ বার সেন্ড মানি করতে পারবেন। এর উপরে একদিনে আপনি ক্যাশ আউট করতে পারবেন না।

আপনি সর্বোচ্চ ২৫০০০  টাকা লেনদেন করতে। এর উপরেন এক টাকাও বেশি ক্যাশ আউট করতে পারবেন না। আপনাকি পরদিন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

মাসিক লিমিটেশন।

প্রতিমাসে ২৫০ বার ক্যাশআউট করতে পারবেন।

টাকার অংকে মাসে ২৫০০০০০  টাকা ক্যাশ আউট করতে পারবেন।

রকেট ব্যালেন্স দেখার নিয়ম।

রকেট কোড দিয়ে অথবা রকেট অ্যাপ দিয়ে ব্যালেন্স চেক বা দেখা যায়। তাই Roket App আজই ডাউনলোড করুন। তাছারা অ্যাপে আরো অনেক রকম সুবিধা ত আছেই।


কোড দিয়ে ব্যালেন্স চেক করবেন যেভাবে;

অনেকে বাটম মোবাইল বা কারো বাহিরে থাকলে ডাটা থাকে না। তাই মেনুর মাধ্যমে ব্যালেন্স দেখার প্রয়োজন পড়ে।


  • *৩২২# ডায়াল করুন।
  • ৫ নম্বর ব্যালেস অপশন 5 লিখে সেন্ড করুন।
  • পিন দিলেই রকেট ব্যালেন্স দেখতে পাবেন।

রকেট পিন পরিবর্তন Change Password.

অনেক সময় পিন পরিবর্তন করার প্রয়োজ পড়ে একাউন্টের নিরাপত্তার স্বর্থে। রকেট একাউন্টেরও পিন পরিবর্তন করা যায় দুই পদ্ধতিতে।


  • মেনু ব্যবহার করে।
  • এপ্লিকেশন ব্যবহার করে।
  • মেনু বা কোড দিয়ে রকেট পিন পরিবর্তন।
  • প্রথমে *322# ডায়াল করুন।
  • 5 নম্বরে my account সেন্ড করুন।
  • তারপর তিন নম্বরে থাকা change password 3 সেন্ড করুন।
  • বর্তমান পিন দিন।
  • নতুন পিন দিন এবং কনফার্ম করুন।
  • আপনি সবগুলো তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করলেই পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে পারবেন অতি সহজেই।


রকেট পিন ভুলে গেলে করণীয়।

রকেট পিন ভুলে গেলে চিন্তার কারন নেই। এর সমাধান আছে। আমরা আজ রকেট পিন ভুলে গেলে কী করণীয়,  সে সব বিষয় দেখাব। এর জন্য আপনাকে যা করতে হবে।


  • Helpline এ কল করুন।
  • আপনার Nid সম্পর্কে তথ্য দিন।
  • তারপর আপনাকে নিউ পিন সেট করতে বলবে।
  • আপনি স্যারের কথা অনুযায়ী তথ্যাদি দিলেই পিন রিকোভার কারতে পারবেন।


আশা করি আপনারা যারা নতুন একাউন্ট করবেন তাদের আর সমস্যায় পরতে হবে না। কারন আমরা আপনার সকল সমস্যার সমাধান এবং রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম বলে দিয়েছি। আপনারা আমদের এখান থেকে রকেট সম্পর্কিত সকল তথ্য পেয়ে যাবেন। 

শেষ কথা,,,

তবে আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে, আপনার রকেট একাউন্টের পিন বা পাসওয়ার্ড কখনও কোন অবস্থাতেই কারও সাথে শেয়ার করা যাবেন না।


আরো পড়ুন:

  1. আই ফোন সারা পৃথিবীতে বিখ্যাত কোনো 
  2. প্রসেসর কি 
  3. বাংলাদেশে dslr ক্যামেরার দাম 
  4. সফ্টওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং কি ?
  5. বিশ্বের সেরা 11টি জনপ্রিয় অনলাইন মোবাইল গেম
  6. নতুন গেমিং ল্যাপটপ 2022
  7. নতুন গেমিং পিসি 2022 |
  8. ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা দামের মধ্যে ভালো ফোন 
  9. কম্পিউটার ভাইরাস কি ? কম্পিউটারে ভাইরাস থেকে রক্ষা পাওয়ার উপায় কি ?
  10. 10000-এর নীচে সেরা ফোন |


0/পোস্ট এ কমেন্ট/Comments