শিক্ষায় কম্পিউটারের অবদান | The contribution of computers in education

 শিক্ষায় কম্পিউটারের অবদান | The contribution of computers in education







শিক্ষায় কম্পিউটারের ভূমিকা
কম্পিউটার শিক্ষা কি?

প্রাথমিক জ্ঞান অর্জনের পাশাপাশি ভালো কাজ সম্পাদনের জন্য কম্পিউটার চালানোর দক্ষতা অর্জন করা। কম্পিউটার শিক্ষা হল বিভিন্ন ক্ষেত্র এবং সেক্টরে অধ্যয়নের বিভিন্ন শাখায় প্রসারিত।

কম্পিউটার, ইন্টারনেট সুবিধার সাথে সবচেয়ে শক্তিশালী ডিভাইস যা শিশুরা শিক্ষায় নতুন দক্ষতা এবং দক্ষতা শিখতে ব্যবহার করতে পারে।

কম্পিউটার জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তারা আমাদের বিভিন্ন উপায়ে সাহায্য করে। উদাহরণ স্বরূপ, তারা মেডিসিন, ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রসেস, এভিয়েশন ইন্ডাস্ট্রি, বিভিন্ন বড় দোকান ও মলে বিল তৈরি, নোট তৈরি এবং কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে বক্তৃতা দেওয়ার জন্য অ্যাপ্লিকেশন সফ্টওয়্যারে উপস্থাপনা স্লাইড তৈরি করে এবং আরও অনেক কিছুতে অ্যাপ্লিকেশন খুঁজে পায়। সংক্ষেপে, শুধু একটি নয়, কম্পিউটার শিক্ষার্থীদের শিক্ষার ক্ষেত্রে সর্বাত্মক ভূমিকা পালন করে।

কম্পিউটার কিভাবে শিক্ষা প্রক্রিয়ায় সাহায্য করে?

কম্পিউটার প্রযুক্তিতে উদ্ভাবন শিক্ষার উপর গভীর প্রভাব ফেলে। এটি স্কুল পাঠ্যক্রমের একটি অংশ গঠন করে কারণ এটি আজ প্রতিটি ব্যক্তির একটি অপরিহার্য অংশ। স্কুলগুলিতে কম্পিউটার শিক্ষা ছোট বাচ্চাদের ক্যারিয়ার বিকাশে একটি প্রধান উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে।

শিক্ষাদান ও শেখার প্রক্রিয়ায় কম্পিউটার (CAL)

স্কুল, কলেজ এবং বড় বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মতো বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সক্রিয়ভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে, কম্পিউটার শিক্ষার্থীদের শেখার প্রক্রিয়াকে সহায়তা করতে ব্যবহৃত হয়। কলেজের অধ্যাপক এবং স্কুলের শিক্ষকরা শিশুদের জন্য পাঠ পরিকল্পনা তৈরি করতে অডিও-ভিজ্যুয়াল কৌশলের সাহায্য নেন। এই জন্য, তারা তাদের লেকচার সম্পর্কে ইলেকট্রনিক উপস্থাপনা প্রস্তুত করতে মাইক্রোসফ্ট পাওয়ারপয়েন্ট ব্যবহার করে।

এই ইলেকট্রনিক উপস্থাপনাগুলি ক্লাসরুমে মাল্টিমিডিয়া এবং সাউন্ড প্রজেক্টরে দেখানো যেতে পারে। এটি শিক্ষার্থীদের জন্য শেখার একটি আকর্ষণীয় এবং সহজ পদ্ধতি। মাল্টিমিডিয়া (দৃষ্টি এবং শব্দ) উপস্থাপনাগুলি শিক্ষকদের জন্যও সরবরাহ করা সহজ কারণ এই উপস্থাপনাগুলি প্রচুর সময় এবং প্রচেষ্টা ব্যয় করে।

গবেষণা

অনলাইন শিক্ষা ও গবেষণার জন্য কম্পিউটার ব্যবহার করা যেতে পারে। ইন্টারনেটের সাহায্যে, শিক্ষার্থীরা তাদের প্রকল্প, অ্যাসাইনমেন্ট সম্পর্কে দরকারী তথ্য খুঁজে পেতে পারে এবং অন্যান্য গবেষকদের কাছ থেকে দরকারী সাহায্যও নিতে পারে কারণ তারা কম্পিউটারে তাদের গবেষণা সামগ্রী সংরক্ষণ ও সংগঠিত করে।





শিক্ষাক্ষেত্রে কম্পিউটারের প্রাসঙ্গিকতা 

শিক্ষা ক্ষেত্রে আমেরিকার ইলিনয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক প্রোগ্রাম রচিত হয় ওই প্রোগ্রামের নাম দেওয়া হয়েছিল Programmed Logic for Automatic Teaching Operation বা PLATO। এখন শিখন (Learning), শিক্ষণ (Teaching)-এর ক্ষেত্রে কম্পিউটার বহুমুখী উদ্দেশ্য সাধন করে যাচ্ছে। আজ কম্পিউটারের ব্যাবহারিক দিক হিসেবে বিভিন্ন নামকরণ করা হয়েছে। যেমন (১) কম্পিউটার সহযােগী নির্দেশনা বা CAT, (২) কম্পিউটার সহযােগী শিখন বা CAL, (৩) কম্পিউটার সহযােগী শিক্ষণ বা CAT, (৪) কম্পিউটার ভিত্তিক শিক্ষা CBT, (৫) কম্পিউটার পরিচালনার নির্দেশ বা CMI, (৬) কম্পিউটার পরিচালিত নির্দেশ বা CML।

(১) CAI or Computer Assisted Instruction : এই ধরনের নির্দেশনা শিক্ষার্থীকেন্দ্রিক, যেখানে সমগ্র বিষয়কে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র অংশে ভাগ করে শিক্ষার্থীদের সামনে তুলে ধরা হয়।

বৈশিষ্ট্য : (a) প্রত্যেক পর্যায়ে শিক্ষার্থী নিজের অগ্রগতি জানতে পারে, (b) শিক্ষার্থী নিজের প্রয়ােজন অনুযায়ী শিক্ষা গ্রহণ করার সঙ্গে সঙ্গে দ্রুত ফিডব্যাক অর্জন করে।

(২) CAL or Computer Assisted Learning : শিক্ষার্থী  কম্পিউটারের সহযোগে শিখন সম্ভব হয় তাকে বলে CAL, এই পদ্ধতিতে শিক্ষক-শিক্ষিকার পাঠ্যপুস্তকের থেকেও বেশি চাহিদা পূরণ হয়।

বিশিষ্ট : (a) শিক্ষার্থীরা বাস্তব পরিস্থিতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারে। (b) শিক্ষার্থীদের সৃজনশীলতা বৃদ্ধি পায়।

(৩) CBT or Computer Based Instruction : CBT শিক্ষণে সাহায্যকারী একপ্রকার প্রতিক্রিয়া মূলক নির্দেশনার কৌশল যা কম্পিউটারের সফটওয়্যার প্রােগ্রামের সঙ্গে শ্রেণিকক্ষের অন্যান্য শিক্ষণসামগ্রীর সমন্বয়সাধন করে।

(৪) CAT or Computer Assisted Training : কোনো বিষয় শেখানাের জন্য বা তালিম দেওয়ার জন্য যখন কম্পিউটারের সাহায্য নেওয়া হয়, তাকে Computer Assisted Training (CAT) বলে| কোনাে বিশেষ যন্ত্রের ক্রিয়াকৌশল শিক্ষার্থীদের বােঝানাের সময় তা যদি Computer Graphics Video-এর মাধ্যমে করা যায় তবে পরবর্তী পর্যায়ে তাদেরকে হাতেকলমে শিক্ষাপ্রদান সহজ হয়।


(৫) CMI or Computer Managed Instruction : CMI বলতে বােঝায় Computer Software-এর মাধ্যমে নির্দেশনা প্রক্রিয়া পরিচালনা করা। উন্নত দেশগুলিতে বহু পূর্বেই CM-এর ব্যবহার শুরু হলেও আমাদের দেশে বর্তমানে স্কুল ও কলেজীয় শিক্ষায় CMI একটু একটু করে প্রভাব বিস্তার করছে। CMI ব্যয়সাপেক্ষ হওয়া সত্ত্বেও নিম্নলিখিত সুবিধাগুলি রয়েছে যথা -

(a) CMI নির্দেশকের ভার লাঘব করে।
(b) CMI ব্যক্তিনির্দেশ বা দল নির্দেশ উভয় ক্ষেত্রেই ব্যবহৃত হয়।
(c) CM, গতানুগতিক নির্দেশনাসামগ্রী ও CBT-এর মধ্যে সমন্বয় সাধনে সক্ষম।
(d) CMI পাঠ্যসূচি প্রণয়নকারী ও নির্দেশক উভয়কেই তাদের কাজে যথাযথভাবে সাহায্য করতে পারে। 
(e) CMI শিক্ষার্থী ও শিক্ষক উভয়েরই দক্ষতার মূল্যায়নে সক্ষম।

(৬) CML or Computer Managed Learning : শ্রেণিকক্ষে শিক্ষক ও প্রশাসনিক কক্ষে প্রশাসক উভয়কেই Computer Software এর মাধ্যমে ব্যক্তিগত ও দলগত নির্দেশনা প্রদানে সাহায্য করে। শিক্ষক শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের সম্মুখে কোনাে বিষয়কে প্রাঞ্জল রূপে উপস্থাপন করতে পারেন। আবার Computer তাকে অভীক্ষা তৈরিতেও যথাযথ সাহায্য করতে পারে। অপরপক্ষে প্রশাসক তাঁর নির্দেশিত কাজের অগ্রগতির রেকর্ড রাখতে ও মূল্যায়ন করতে পারেন Computer-এর মাধ্যমে।























0/পোস্ট এ কমেন্ট/Comments